Sajek Valley tour / সাজেক ভ্যালি ভ্রমণ

Sajek Valley tour / সাজেক ভ্যালি ভ্রমণ



30 Dec 20:00 - 02 Jan 07:00 - Rangamati
সাজেক ভ্যালি- Sajek Valley, Baghaichari Upazila, Rangamati

Route
More info

মেঘের দেশ সাজেক ভ্যালি ভ্রমন (3 Nights 2 dyas) যাওয়া আসা সহ।
যাত্রার তারিখ : 30/12/2017 রাত ১১:০০ টায়
ফেরার তারিখ : 01/01/2018 রাত ০৯:৩০ টায়
বুকিং এর জন্য কল করুন: 01738122657 বা 01910787002
ঘরোয়া পরিবেশে এবং পাহাড়ি আমেজে 31st Night উদযাপন with মাস্তি।।

ভ্রমনের খরচ:
1.জন প্রতি 5500 টাকা নন এসি বাস ৪ জন এর রুম শেয়ার



2.জন প্রতি 5800 টাকা নন এসি বাস Couple রুম ।
3.জন প্রতি 6200 টাকা এসি বাস ৪ জন এর রুম শেয়ার ।
4.জন প্রতি 6800 টাকা এসি বাস ও Couple রুম ।
@AC Bus : Eagle paribahan / Shanti Paribahan
@ নন এ সি বাস: ঈগল পরিবহন / শ্যামলী পরিবহন / এস আলম সার্ভিস / সৌদিয়া
Baby Policy : ৩ বছর পর্যন্ত সম্পূর্ণ ফ্রি। ৩-৬ বছর পর্যন্ত ৬০% সেক্ষেত্রে বাসে সিট পাবে কটেজে বাবা মার সাথে এক বিছানায় থাকতে হবে। আর যদি বাসে সিট ও কটেজে আলাদা সিট নেওয়া হয় তাহলে ১০০% প্যাকেজ মূল্য দিতে হবে।

যা যা থাকছে ভ্রমনের মধ্যে:
1। ঢাকা –খাগরাছারি-ঢাকা এসি/ নন এসি বাসের আপডাউন টিকেট।
2। চান্দের গারি ২ দিন রির্জাভের খরচ।
3। ১ রাত কাঠের কটেজে ( Paharika ) থাকার খরচ ও ৬ বেলা খাবার এবং ডিনারে ভিন্ন স্বাদের B-B-Q dinner।
4. আলুটিলা প্রবেশ ফী.
5. সাজেক প্রবেশ ফী.
6. চান্দের গাড়ির ড্রাইভার হেলপার এর থাকা খাওয়ার খরচ.

বুকিং এর নিয়মঃ
বুকিং চার্জ জন প্রতি ২০০০ টাকা চার্জ প্রদান করে বুকিং দিতে পারবেন বাকী টাকা ভ্রমনের ১০দিন পূর্বে পেমেন্টে করতে হবে।

BKash Merchant Account No.: 01552393909 (Please Confirm TRXID by mail/sms/inbox after sending)
Rocket Account No.: 01552393909 (Please Confirm TNXID by mail/sms/inbox after sending)

Bank Payment:
You can also make payment through on-line bank transfer/cash deposit.
CITY BANK ACCOUNT INFORMATION:
Account Name: RUPSA Travel
AC No: 1401862905001
City Bank, Nikunja Branch, Khilkhet, Dhaka.
(Please Confirm payment slip by mail/sms/inbox after payment)

#ভ্রমণ সূচী
30/12/2017 রাত ১১:০০ ফকিরাপুল/আরামবাগ থেকে রওনা দিয়ে 31/12/2017 তারিখ ভোর ৬ টায় আমরা পৌছাব খাগড়াছড়ি। খাগড়াছড়ি পৌছাতে পৌছাতে অরন্য ঘেরা আকা বাকা উচু নিচু পাহাড়ি রাস্তায় ভোর হওয়ার সৌর্ন্দয্য উপভোগ করব। খাগড়াছড়ি পৌছে আমরা হোটেলে উঠবো তার পর ফ্রেশ হয়ে নাস্তা করবো । নাস্তা শেষে চান্দের গাড়ি করে আনুমানিক সকাল ০৮:০০ টায় রওনা হব সাজেকের উদ্দেশ্য। খাগড়াছড়ি থেকে সাজেকের দুরত্ব কমবেশী ৭৫ কি:মি: সময় লাগে মোটামুটি ৩ ঘন্টা। পথিমধ্যে বাঘাইছড়ি বাজারে আমরা অপেক্ষা করবো সেনাবাহিনীর স্কট এর জন্য। এর ফাকে বাঘাইছড়ি চেক পোস্ট এর কাছে আমরা হাজার ছড়া ঝরনা দেখব।

১০:৩০ টা নাগাদ সেনাবাহিনীর গাড়ি বাঘাইছড়ি থেকে স্কট দিয়ে নিয়ে যাবে সাজেকের দিকে। রাস্তার দুই পাশে উচু নিচু পাহাড় আর সবুজের বুক চীড়ে এগিয়ে যেতে থাকবে গাড়ি। ও হা! একটা তথ্য জানানে প্রয়োজন, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় জেলা রাঙ্গামাটি আর রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলা বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উপজেলা যা আয়তনে মেহেরপুর জেলার থেকে ও বড়। আর বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়ন বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ইউনিয়ন। গাড়ি যতই সামনের দিকে এগুতে থাকবে ততই পাহাড়ের উচ্চতা বাড়তে থাকবে। এক সময় আমরা মাসালং ব্রীজ ক্রস করব ব্রীজ এর বাম পাশে দেখতে পাবেন দুইটি পাহাড়ি নদী যা এক সাথে মিলিত হয়ে মাসালং নদী হয়ে চলে গেছে দক্ষিনে। জন স্রুতী আছে এই দুই নদী দুই ভাই বোন যাদের নাম একটি গঙ্গারাম আর একটি মাসালং নদী। পথের দুই পাশ হতে পাহাড়ি শিশুর অভ্যর্থনা আপনার হৃদয় ছুয়ে যাবে। মনে হবে আপনি যেন এসছেন কোন এক স্বর্গ রাজ্যে, আর শেষের ৬ কি:মি: গাড়ি শুধু উপরের দিকে উঠতেই থাকবে উঠতেই থাকবে আপনি এক সময় পৌছে যাবেন মেঘের দেশ সাজেকে। আসলে একটু ভাল করে অনুভব করলে হয়তো আপনার ভ্রমনের পুরো আনন্দটা পেয়ে যেতে পারেন যাত্রা পথে। সাজেক পৌছে আমরা উঠব হোটেলে। গ্রুপ অনুযায়ী আগ থেকেই রুম এ প্লান করা থাকবে। হোটেলে ফ্রেশ হয়ে আমরা লান্স করব যা আগে থেকেই অর্ডার করা থাকবে। খাবার শেষে আশে পাশে ঘুরা ঘুরি করে বিকেলে যাব সাজেকের সর্ব্বোচ্চ পাড়া কংলাক। ওই খানে মেঘের লুকোচুড়ি দেখে সন্ধা বেলা হালকা চা পানি সেরে আড্ডা ও গান হবে সাজেক হেলিপ্যাড এ ও রাত ৮:৩০ টা বা ০৯:০০ টায় রাতের খাবার - বার বি কিউ ডিনার- পার্টি মাস্তি ।

পর দিন 1/1/2018 তারিখ খুব ভোরে উঠে (০৫:৩০) সাজেক সূর্যদয় দেখবো। আপনি যখন দেখবেন বাংলাদেশের পূর্বের মিজুরামের সু- উচ্চ পাহাড়ের আড়াল থেকে লাল সূর্য উদিত হচ্ছে। আপনি তখন আনন্দে উদ্বেলীতে হবেন। সাজেকে রংধনু নিত্য নৈমেতিক ব্যাপার ভাগ্য ভাল হলে আপনি ও রংধনু সৌর্ন্দয্য উপভোগ করতে পারবেন। আমরা সকালের নাস্তা শেষ করে রওনা হবো খাগড়াছড়ির উদ্দেশ্য। খাগড়াছড়ি পৌছে হোটেলে ফ্রেশ হয়ে মধ্যন্য ভোজ শেষ করব খাগড়াছড়ির বিখ্যাত রেস্টুরেন্ট সিস্টেমে বিভিন্ন প্রকারের শুটকি ভর্তা, সব্জি,ডাল ইত্যাদি। খাবার শেষে বেরিয়ে পরব খাগছড়ির বিভিন্ন স্পর্ট দেখতে।
1. রিসাং ঝর্না
2. (আলুটিলা) সুড়ঙ্গ
3. তারেং হেলি প্যাড
3.। জেলা পরিশধ পার্ক , ঝুলন্ত ব্রিজ।
রাতের আহার শেষ করব সিস্টেম/থাংময় রেস্টুরেন্ট এ এবং ৮:৩০ টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা। 01/01/2018 ভোর ৫ টায়. আমরা ঢাকায় থাকবো ইনশাহ আল্লাহ্‌।

তথ্য সমূহ:
1। প্রতি Jeep এ ১২ জন
2। খাগড়াছড়িতে ফ্রেশ হওয়ার জন্য হোটেল রুম ছেলেদের এবং মেয়েদের জন্য আলাদা আলাদা।

#খাবারের মেন্যুঃ
সকালের নাস্তা: ডিম, সবজি, পরটা, চা।
দুপুরের খাবার সাজেক : পাহাড়ি মুরগীর মাংস, আলু ভর্তা, সব্জি, ডাল, সাদা ভাত
রাতের খাবার সাজেক ভ্যালী : মুরগির B-B-Q+ পরটা ।
দুপুরের খাবার খাগরাছারিঃ বিখ্যাত বাম্বু চিকেন+ফিশ ফ্রাই+শব্জি +ডাল +ভাত।
ডিনারে: খাগরাছারিতেঃ- দেশি মুরগি + টাকি মছের ভ্রতা+সব্জি+ ডাল

***খাগড়াছড়িতে দুপুর খাবার খাবো বিখ্যাত সিস্টেম রেস্টুরেন্টে ও রাতের খাবার মনটানা রেস্তরায়***

যা যা ভ্রমন খরচের মধ্যে থাকবেনা :-
1। বাসের যাত্রা বিরতির খাবার।
2। উল্লিখিত ভ্রমন পথের তুলনায় অতিরিক্ত ঘুরে বেড়ানো বা গাড়ি অতিরিক্ত ব্যবহারের খরচ।
3। প্রাকৃতিক দুযোর্গ, ভুনিধস, রাস্তা অবরোধের কারনে উভুত কোন খরচ ক্রেতা ও ভোক্তাকে সরাসরি ঘটনাস্থলেই বহন করতে হবে।

বিবেশষ দ্রস্টব্যঃ
১। বুকিং এর টাকা অফেরত যোগ্য
২। যাত্রার ৭ দিন আগে অবশ্যই পুরো টাকা পরিশোধ করতে হবে।

কি কি নিতে হবে।
১। ব্যাগ, ২। গামছা, ৩।ছাতা,সানগ্লাস, সানক্যাপ
৪। টুথপেস্ট/সাবান/শ্যাম্প ৫। কেডস্/স্যান্ডেল
৬। ক্যামেরা/ব্যাটারি/চার্জার ৭। পলিথিন, ৮। সানগ্লাস ৯। Body Lotion
১০। রবি সিম
সাজেক এ অন্য অপারেটরের নেটওয়ার্ক নেই।

** এই বিশেষ ভ্রমন প্যাকেজ ছাড়াও প্রতি সপ্তাহের বৃহস্পতি বার ও রবি বার সাজেকের রেগুলার ইকোনমি প্যাকেজ চালু আছে। তাহলে আর দেরি কেন? আজ ই বুকিং দিন। গ্রুপ ৮-১২ জন বুকিং এ পাবেন বিশেষ ডিস্কাউন্ট।

@কর্পোরেট প্যাকেজ @
*** সাজেক ভ্যালি ছাড়াও আমরা দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জায়গায় কর্পোরেট প্যাকেজ করে থাকি। ***
www.travel.rupsa.org.bd



© 2018 Siguez